এই পোস্টটি ২৯৩ বার পড়া হয়েছে


সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীর সাক্ষাতকার পড়ার পর সংক্ষিপ্ত মন্তব্য

বিডিনিউজ২৪.কম এর সাহিত্য সংক্রান্ত পাতা থেকে বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীর এক সাক্ষাতকার নেয়া হয়। সাক্ষাতকারটি নিয়েছেন রাজু আলাউদ্দিন। দীর্ঘ এই সাক্ষাতকারটি পড়ে আমার বিভিন্ন বিষয়ে অ্নেক ধারণা অর্জন সম্ভব হয়েছে।

সাক্ষাতকারটির একটি বিষয় নিয়ে আমার একটু মতামত দেয়ার ইচ্ছে হয় এবং তা বিডিনিউজ২৪.কম এর সাহিত্য পাতার কমেন্ট অংশে লিখি। উক্ত মন্তব্যটি নিচে তুলে ধরলাম-

তাঁর সাক্ষাতকারে তিনি হুমায়ুন আজাদ সম্পর্কে বলছেন,

“হুমায়ুনের একটি অসাধারণ গুন ছিল, হুমায়ুন ছিল অসাধারণ পরিশ্রমী, এই রকম পরিশ্রমী খুব কম দেখেছি। আমার সাথে তার খুবই অন্তরঙ্গতা ছিল, তবে আমার খুব দুঃখ লাগে এই যে তার বিপদগুলো ডেকে আনলো, আমি ওই রকম বিপদ ডেকে আনতে চাই না।”

হুমায়ুন আজাদ যা বলতেন তা খুব জোর দিয়ে রূঢ় ভাষায় না হলেও তীক্ষ্ণ ভাষায় বলতেন। তাঁর এই বলার কারণেই আজ তিনি নেই!! হুমায়ুন আজাদ নিজের বিপদ ডেকে আনলেন। যেমন ডেকে আনলেন অনেকেই।
আর প্রফেসর সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, তিনি নিজের সম্পর্কে বলছেন,

“হয়তো আমার মধ্যে অতটা বীরত্ব নেই, আমি অতটা সাহসী নই। কেউ কেউ বলবে আমি হয়তো কাপুরুষ।”

সহজ স্বীকারোক্তি।
মৌলবাদী ঘাতকের দ্বারা হত্যার শিকার এক বুদ্ধিজীবী হুমায়ুন আজাদ, যিনি দুঃসাহসী এবং অন্যদিকে ‘সাহসী নই’ জীবনদর্শনে আক্রান্ত বর্তমান প্রথিতযশা বুদ্ধিজীবী, এই দুইয়ের মাঝে যেন নিঃসীম ক্লীবতা, সৎসাহসের খরা! এই-ই যেন দেশের চলমান বেঘোর চেতনার যাপিত জীবন!
রাজু আলাউদ্দিনকে ধন্যবাদ শ্রদ্ধেয় শিক্ষক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীর সুন্দর সাক্ষাতকারটির জন্য।

মূল লেখাটির লিংক

লেখাটির শিরোনাম:

সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীর সাক্ষাতকার: “গান্ধী কিন্তু ভীষণভাবে সমাজতন্ত্রবিরোধী ছিলেন”

Advertisement