এই পোস্টটি ২৮১ বার পড়া হয়েছে


হেগা চাঙমা’র ফেসবুক স্ট্যাটাস- না হয় একটু আপোষ…

বয়স বেড়েছে, বেড়েছে খরচ। খরচের তুলনায় অর্থের যোগান একেবারেই সীমিত। প্রতি মাসে দেনার খাতায় বিশাল অংক যোগ হওয়ায় পৌনপুনিকভাবে ঘাটতি থেকেই যাচ্ছে। কোনভাবেই অতিক্রম করা যাচ্ছে না এই সংকট। এমতাবস্থায়, এ রাগী মানুষটির একটা চাকরি খুবই প্রয়োজন হয়ে পড়েছে। সে এটাও খুব ভালোভাবে জেনে গেছে যে চাকরি করতে গেলে এমন রাগী স্বভাব বদলাতে হতে। তাই, বিভিন্ন সংকটের মধ্যে আপোষীপনা বাড়ছে জ্যামিতিক। আর তার ভাবনা জুড়ে আছে অন্য এক জগত, যে জগতের নাম আত্মমর্যাদার লড়াই, স্বাধীনভাবে টিকে থাকার যুদ্ধ।

বুঝতে পারছি, আমার ভাবনার জগতকে দারুন প্রভাবিত করছে বাস্তবতা। মনন জগতে বিচিত্রসব দ্বন্দ্ব খেলা করছে। না-পাওয়ার যন্ত্রণাগুলো তীব্র থেকে তীব্রতর হচ্ছে। ক্ষোভ-বিক্ষোভ আছে যত সব বেড়িয়ে আসতে চাচ্ছে। সেটাও আজকাল কম আপোষী নয়! কবিতাগুলোও আজকাল আর লেখক প্রধান থাকছে না, হয়ে পড়ছে পাঠকের চাহিদার আনুগত। এটাই বুঝি “লেখকের মৃত্যু” রিডার রেসপন্স থিওরীর!

কয়েকদিন ধরে মনের মধ্যে একটা বিষয় ঘুরপাক খাচ্ছিল- স্বতন্ত্রতা নাকি সামষ্টিকতা, কোনটি অবলম্বন করে এগিয়ে যাওয়া উচিত? আমার মনন জুড়ে এতদিন ছিল সামষ্টিকতার জয়জয়কার। কিন্তু সমস্তের সাথে চলতে গিয়ে মনে হল ওরা চায় দলগত মিথ্যা প্রশংসা, ওদের সাথে টিকে থাকতে গেলে আপনাকে রপ্ত করতে হবে ঐ অভ্যাসটা। দলের বা কোরামের অন্ধ প্রশংসা করতে হবে কেউ শুনুক বা না শুনুক। আজকাল যে সব “প্রগতিশীলতা” দেখা যায় সেটা বড়ই গোত্রবাদী, কোরামবাদী, অন্ধ-অনুকরণদুষ্ট।

কিছু বিষয় খুব কাছ থেকে দেখেছি। মনে হয়েছে একটি ঘটনা ঘটার পর তার যে বিস্তার সেটি খুবই সুপরিকল্পিত, এবং কনস্ট্রাকটেড। ঘটনার পর মেকানিকরা নিয়ন্ত্রণ করেছেন ঘটনা-প্রবাহকে আর ওদের স্বার্থকে রক্ষা করে চিল্লাচিল্লি করেছে এসব ঘটনা থেকে দূরে থাকা অনেকে। আমি চিল্লাই নি কিংবা অনেকের সাথে মিশিলে গিয়ে তাল মেলাই নি বলে অনেকে ভাবছে আমি অন্যায়ের পক্ষে! ইতিমধ্যে কেউ কেউ বলাবলি শুরু করেছে দেখে আমি হাসি চেপে রাখতে পারছি না… হা হা হা! একটি অন্যায়ের বিরুদ্ধে দাঁড়াতে গিয়ে আমরা অনেকসময় ভয়ংকর রকমের অন্যায়কে প্রশ্রয় দিই। “ন্যায়ের পক্ষে” যুদ্ধরত অনেকে ভয়ংকরভাবে অন্যায় করেও জিতে যাচ্ছে এ সমাজে-জাতিতে-দেশে…

আমি না হয় একটু আপোষী হলাম.. বুঝতে চেষ্টা করলাম, ভাবতে চেষ্টা করলাম, আর মাঝে মাঝে ভাবকে সামান্য প্রকাশ করলাম!

Advertisement